রাজবাড়ী, ১৫ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২

ফেক আইডি থেকে

মৌরাট ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রহিম মিয়াকে নিয়ে কুৎসা রটনার অভিযোগ

প্রকাশ: ২ জুলাই, ২০২২ ১০:৩৮ : অপরাহ্ণ

প্রিন্ট করুন

॥ মাসুদ রেজা শিশির ॥রাজকন্ঠ ডট কম


রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার মৌরাট ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ হাবিবুর রহমান (রহিম মিয়া) কে নিয়ে চলছে রাজনৈকিত সড়যন্ত্র। বিভিন্ন সময় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ফেক আইডি খুলে সামাজিক ও রাজনৈতিক ভাবে হেয় করার লক্ষে চালিয়ে যাচ্ছে অপ্রচার। এ নিয়ে স্থানীয় আওয়ামীলীগের নেতা কর্মীরা বিব্রত হচ্ছেন। রাজনৈতিক খবর, মৌরাটের রাজনিতি, ক্রাইম রাজবাড়ী নামক বেশ কয়েকটি ফেক আইডি থেকে করা হচ্ছে অপ্রচার।
এসব বিষয়ে মৌরাট ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ হাবিবুর রহমান (রহিম মিয়া) বলেন- আমি রাজবাড়ী জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জিল্লুল হাকিম এমপি’র আর্দশে তার দিক নির্দেশনায় আওয়ামীলীগের রাজনিতি করে আসছি, আমি সরকারী চাকুরী থেকে অবসর নিয়ে মৌরাট ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের হাল ধরেছি, আমার কিছু দোষ আছে সেটা হলো উচিৎ কথা বলা আমি এ উচিৎ কথা বলায় কিছু মানুষের বিরাগভাজন হয়েছি তারাই পরিকল্পিত ভাবে ফেস বুকে বিভিন্ন সময় আমাকে নিয়ে অপ্রচার চালাচ্ছে এসব বিষয় নিয়ে আমি মোটেও বিচলিত নই। আমি বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মৌরাট ইউনিয়ন শাখাকে শক্তিশালী করতে কাজ করে যাচ্ছি যারা দলের নাম ভাঙ্গিয়ে অপকর্মে লিপ্ত আমি তাদের বিরুদ্ধে আগেও বলেছি এখনও বলছি সামনেও বলল। মৌরাটে স্বর্নের বার ছিনতাই বিষয়টি নিয়ে আমার বাড়ীতে মিটিং হয়েছে বলে ফেক আইডি থেকে গুজব ছড়ানো হয়েছে যা সম্পূন্য মিথ্যা ও বানোয়াট। ইউনিয়ন পরিষদের সামনে থেকে এ ঘটনা ঘটেছে তখন তো ইউনিয়ন পরিষদ ও আশপাশ এলাকায় অনেক লোকছিলা তাৎক্ষনিক কেন তারা ব্যবস্থা নেই নি প্রমন প্রশ্ন করেন ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হাবিবুর রহমান রহিম মিয়া।
পূনরায় আমাকে নিয়ে মিথ্যা বানোয়াট ও বিভ্রান্তি ছড়ালে আমি আইনের মাধ্যমে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিব। আসন্ন ঈদুল আযহা উপলক্ষে মৌরাট ইউনিয়ন বাসিকে মৌরাট ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে রহিম মিয়া সকল শ্রেণী পেশার মানুষকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন।