রাজবাড়ী, ১৫ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২

কালুখালীতে বিশ্ব নবীর কটুক্তি করার প্রতিবাদে বিশাল বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত

প্রকাশ: ১৭ জুন, ২০২২ ১০:০০ : অপরাহ্ণ

প্রিন্ট করুন

হাসমত আলী/ হেলাল উদ্দিন॥ রাজকন্ঠ ডট কম 

ভারতে ক্ষমতাসীন দল বিজেপির মুখপাত্র নুপুর শর্মা ও দিল্লি শাখার প্রধান নবীন কুমার জিন্দাল মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা) এবং উম্মুল মুমিনীন হযরত আয়েশা (রা) এর শানে চরম কটূক্তির প্রতিবাদে এবং রাষ্ট্রীয়ভাবে নিন্দা জানানোর দাবিতে কালুখালীতে বিশাল বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে ।
শুক্রবার ১৭ জুন জুম্মাবার কালুখালী রেলস্টেশন ময়দানে উপজেলা সম্মিলিত ওলামা-মাশায়েখ ও তৌহিদি জনতার আয়োজনে এই বিক্ষোভ সমাবেশ কালুখালী রেল স্টেশন প্লাটফর্ম থেকে উদ্বোধন করেন কালুখালী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলিউজ্জামান চৌধুরী টিটো।
এই বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে উদ্বোধনী বক্তব্যে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলিউজ্জামান চৌধুরী টিটো বলেন, আজ সারা বিশ্ব নবীর চরম কটুক্তি করার কারণে বিশ্বব্যাপী মুসলমানেরা প্রতিবাদ করছে বাংলাদেশের বিভিন্ন জায়গায় প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হচ্ছে আমরা বিশ্ব নবীর উম্মত আমি একজন মুসলমানের সন্তান হিসেবে এ অন্যায় অপরাধ মেনে নিতে পারি না সেজন্য আমি এই সমাবেশের একাত্মতা ঘোষণা করে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ মিছিল এবং সমাবেশ হওয়ার জন্য সকল উপস্থিতি তৌহিদী জনতার মুসলমান ভাইদের অনুরোধ করছি আপনারা যতসময় প্রয়োজন মনে করেন অত্যন্ত সাহসিকতার সাথে শান্তি পূর্ণভাবে এই সমাবেশ পরিচালনা করবেন আমি আপনাদের পাশে আছি কোন সমস্যা হবেনা ইনশাল্লাহ।কিন্তু মনে রাখবেন আমাদের আচরণের জন্য কোন ধর্মের লোক কষ্ট না পায় ইসলাম শান্তির ধর্ম আমরা শান্তির ধর্ম ইসলামের ও মুসলমানদের মহান পুরুষ বিশ্ব নবীর উপর কটুক্তি করার চরম সাহস নুপুর শর্মা এবং নবীন জিন্দাল রেখেছেন এটা আমরা বাংলাদেশের মানুষ তথা কালুখালীর মানুষ মেনে নিব না নিতে পারিনা।

উপজেলার কয়েকটি ইউনিয়ন থেকে আগত হাজার হাজার ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের সমাগম স্বল্প সময়ের মধ্যেই কালুখালি রেলস্টেশনে কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায় পরে কালুখালী রেলস্টেশন থেকে বিক্ষোভ মিছিলটি শুরু করে উপজেলা শহরের গুরুত্বপূর্ণ ও প্রধান সড়কগুলো প্রদক্ষিণ শেষে রতনদিয়া রজনীকান্ত সরকারি মডেল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন উপজেলা ইমাম কমিটির সভাপতি হাফেজ মাওলানা আব্দুল মালেক,সাধারন সম্পাদক মাওলানা আবুল কালাম আজাদ,জয়নাল আবেদীন, হাফেজ ফিরোজ হোসেন, মাওলানা সাঈদ আহমেদ, মাওলানা মুফতি নিজাম উদ্দিন আজাদী,মাওলানা শফিকুল ইসলাম, হাফেজ মাওলানা জিল্লুর রহমান, প্রমুখ।
তৌহিদী জনতার উপস্থিতিতে বক্তব্য শেষে দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করেন রতনদিয়া বাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতিব ও উপজেলা ইমাম কমিটির সভাপতি হাফেজ মাওলানা আব্দুল মালেক।
বিকেল তিনটার মধ্যে রতনদিয়া রজনীকান্ত সরকারি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের বিশাল মাঠ উপজেলার বিভিন্ন মসজিদ থেকে আগত ঈমানদার মুসলমানদের উপস্থিতিতে কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায়।
এ সময় লক্ষ্য করা যায় তৌহিদী জনতার হাতে বিভিন্ন ব্যানার ফেস্টু সেখানে লেখা রয়েছে নুপুর শর্মার ফাঁসি চাই,ভারতীয় পণ্য বন্ধ করতে হবে, রাষ্ট্রীয় ভাবে এর প্রতিবাদ এবং নিন্দা জ্ঞাপন করতে হবে, অবিলম্বে ভারতের সকল পণ্য বাংলাদেশে ক্রয় বিক্রয় বন্ধ করার দাবি জানান। এই বিক্ষোভ মিছিল এবং সমাবেশে থেকে আরো লক্ষ করা যায় নুপুর শর্মা এবং জিন্দাল এর প্রতিকৃতি বানিয়ে তাদের দুই গালে জুতা মারা এবং অগ্নিদাহ করে দেয়া।
কালুখালী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো: নাজমুল হাসান বলেন, বিশ্ব নবীর কটূক্তির প্রতিবাদে কালুকালীর ধর্মপ্রাণ মুসলমানেরা অত্যন্ত শান্তিপূর্ণভাবে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে এখানে কালুখালী থানা পুলিশ তার পুলিশিং এর দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করেছেন বাংলাদেশ পুলিশ শান্তি এবং শৃংখলার পক্ষে অবস্থান করছে এবং কালুখালী থানা পুলিশ তারই ধারাবাহিকতায় শৃংখলার পক্ষে এবং বিশৃংখলার বিপক্ষে অবস্থান করবে। আমরা লক্ষ্য করেছি আজকে জুম্মার নামাজের পর বিভিন্ন এলাকার বিভিন্ন মসজিদ থেকে ধর্মপ্রাণ মুসলমানেরা বিশ্বনবীর ভালোবাসার দাবিতে দলে দলে প্রতিবাদ সমাবেশে এসেছেন। আমরা তাদের শান্তিপূর্ণ সমাবেশ করার সার্বিক সহযোগিতা করেছি এবং শান্তিপূর্ণ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।