রাজবাড়ী, ১১ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, শনিবার, ২৫ জুন ২০২২

বিচার পাওয়ার আশায়

হাবাসপুরের শাহমিরপুরে ২ সন্তানের জননী অপরের ঘরে উঠে বসেছে

প্রকাশ: ১১ জুন, ২০২২ ৯:১০ : অপরাহ্ণ

প্রিন্ট করুন

মাসুদ রেজা শিশির রাজকন্ঠ ডট কম

রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার হাসাসপুর ইউনিয়নের শাহমিরপুর গ্রামের ভ্যান চালক ২ সন্তানের জনক কামালের বাড়ীতে গত ২দিন ধরে একই এলাকার ২ সন্তানের জননী বিচার পাওয়ার আশায় বসে রয়েছেন।

শনিবার সরে জমিনে গিয়ে দেখাযায় ওই নারী কামালের ঘরের একটি রুমে ২টি সন্তান নিয়ে বসে আছেন উৎসুখ জনতা ভীর করেছেন ওই নারীকে ঘিরে।
কি জন্য আপনি এখানে বসে আছেন এমন প্রশ্নের জবাবে ওই নারী বলেন কামাল জোর করে আমার ছবি তুলে ফেসবুকে ছেড়ে দিয়েছে আর আমার ঘরের পাশে গিয়ে মাঝে মধ্যেই বিরক্ত করে এ জন্যই বিচারের দাবীতে আমি এখানে বসে আছি আপনারা আমার এই ঘটনার বিচার করে দেন। এদিকে ওই নারীর স্বামী ও তার শাশুড়ি বলেন প্রায় ৩ বছর আগে ওই নারীর সাথে কামালের সর্ম্পক ছিল সেটা ধরা পরার পর শালিশের মাধ্যমে সমাধান করে পূনরায় আমরা ঘর সংসার করছিলাম।
এখন আজ আবার ওই নারী সেখানে গিয়ে উঠেছে আমার স্ত্রীর ছবি নেটে ছেড়েছে। পূনরায় ওই নারীর সাথে কথা হলে তিনি বলেন ৩ বছর আগে কামালের সাথে আমার সর্ম্পক ছিল, তার সাথে ওই সময় শারিরিক সর্ম্পকও হয়েছিল। এখন নাই, আপনি কি কামালকে বিয়ে করবেন এমন প্রশ্নে ওই নারী বলেন না আমি আমার ছবি ও বিরক্তি করার বিষয়ে বিচার চাইতেই এখানে রয়েছি।
এদিকে ওই এলাকার উৎসুখ জনতা ভীর করে আছেন ওই বাড়ীতে, স্থানীয়রা বলছেন উভয়ই খারাপ। ইতি পূর্বেও তাদের সর্ম্পকের কথা শুনেছিলাম আমরা। স্থানীয় ইউপি সদস্য মোঃ খোকন বিশ্বাস বলেন-আমিও শুনে এসেছিলাম আপনাদের মতই তবে উভয় খারাপ লোক এর আগেও এই ২ জন নিয়ে শালিশ হয়েছিল। আজ এই মহিলা পূনরায় এ বাড়ীতে অবস্থান করায় এলাকার মানুষের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছেন।
এ ব্যাপারে কামালের কথা বলার চেষ্ঠা করে পাওয়া যায়নি তবে তার পরিবারের লোকজন বলছে এটা সড়যন্ত্র আমাদের হেয় করার লক্ষেই একটি মহল উসকানি দিয়ে ওই নারীকে এই বাড়ীতে উঠিয়ে দিয়েছে।