রাজবাড়ী, ১৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, রোববার, ২৯ মে ২০২২

গোপাল বিশ্বাস হত্যায় ব্যবহৃত পিস্তলসহ ওয়ান-শুটারগান উদ্ধার ॥ পাংশায় ২ সন্ত্রাসী সহ গ্রেফতার-৩

প্রকাশ: ১১ মে, ২০২২ ৯:৫৮ : অপরাহ্ণ

প্রিন্ট করুন

পাংশা (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি ॥রাজকন্ঠ ডট কম


রাজবাড়ীর পাংশা মডেল থানা পুলিশ বিশেষ অভিযান চালিয়ে আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার ২ সন্ত্রাসীসহ ৩ জনকে গ্রেফতার করে বুধবার আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে। গ্রেফতার কৃতরা হলেন উপজেলার শরিষা ইউনিয়নের নাওড়া বনগ্রামের তুষার বিশ্বাসের ছেলে বাধন বিশ্বাস (১৯) ও মন্টু শিকদারের ছেলে আশিক শিকদার (২২) ও একই এলাকার গোপাল বিশ্বাস হত্যা মামলার পলাতক আসামী তপু সরকারের স্ত্রী উর্মী শিদকার।
গ্রেফতার কৃতদের নিকট থেকে সম্প্রতি গোপাল বিশ্বাস হত্যায় ব্যবহৃত বিদেশী ৭.৬৫ এমএম পিস্তল একটি, দেশীও তৈরী একটি ওয়ান শুটারগন (এলজি), একটি ম্যাগজিন, এক রাউন্ড তাজা গুলি ও একটি গুলির খোসা উদ্ধার করা হয়েছে। গোপাল বিশ্বাস হত্যা মামলার পলাতক আসামী তপু সরকারের স্ত্রী উর্মী শিদকারের তত্বাবধায়নেই ছিল দেশীও তৈরী একটি ওয়ান শুটারগন (এলজি)।
বুধবার দুপুরে পাংশা মডেল থানা কতৃক এক প্রেস কনফারেন্স’র মাধ্যমে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন পাংশা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মাদ মাসুদুর রহমান। প্রেস নোটের মাধ্যমে জানাযায় রাজবাড়ীর পুলিশ সুপার এম এম শাকিলুজ্জামানের সার্বিক দিক নির্দেশনায়, সহকারী পুলিশ সুপার (পাংশা সার্কেল) সুমন কুমার সাহার সার্বিক তত্বাবধায়নে ও পাংশা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মাদ মাসুদুর রহমানের নেতৃত্বে এস আই মিজানুর রহমান সঙ্গীয় পুলিশ দল ১০ মে রাতে অভিযান চালিয়ে এ সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করেন।
পাংশা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মাসুদুর রহমান বলেন – গোপাল বিশ্বাস হত্যার ২৪ ঘন্টার মধ্যে আমরা প্রধান আসামীকে গ্রেফতার করেছিলাম, ৩ দিনদিনের ব্যবধানে হত্যায় ব্যবহৃত অস্ত্রসহ আসামীদের গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছি আমরা।
সহকারী পুলিশ সুপার (পাংশা সার্কেল) সুমন কুমার সাহা বলেন- রাজবাড়ী জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার স্যারের সার্বিক দিক নির্দেশনায় রাজবাড়ী জেলাকে মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ মুক্ত করাসহ অবৈধ অস্ত্র গুলি উদ্ধারে আমরা কাজ করে যাচ্ছি।