রাজবাড়ী, ১০ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১

কালুখালীতে ইউনিয়ন পর্যায়ে করোনার টিকা প্রদানের প্রস্ততি সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশ: ৩ আগস্ট, ২০২১ ৮:৪৫ : অপরাহ্ণ

॥রুবেল আহম্মেদ॥রাজকন্ঠ ডট কম


সারাদেশে শুরু হচ্ছে একযোগে ইউনিয়ন পর্যায়ে টিকাদান কার্যক্রম তারই ধারাবাহিকতায় কালুখালী উপজেলা প্রশাসনে আয়োজনে ইউনিয়ন পর্যায়ে করোনার টিকাদান কার্যক্রমের প্রস্ততিমূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
মঙ্গলবার দুপুর ২ টায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে ভারপ্রাপ্ত ইউএনও মোঃ ইসমাইল হোসেন এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন ইউনিয়ন পর্যায়ে টিকা কার্যক্রমের সদস্য সচিব উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ খোন্দকার মোহাম্মদ আবু জালাল,কালুখালী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ নাজমুল হাসান,উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা(ভারপ্রাপ্ত) জয়ন্ত কুমার দাস,উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা(ভারপ্রাপ্ত) আব্দুর রশিদ,উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও কালিকাপুর ইউপি চেয়ারম্যান আতিউর রহমান নবাব,রতনদিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মেহেদী হাচিনা পারভিন নিলুফা,সাওরাইল ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম আলী,মদাপুর ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম মৃধা,মৃগী ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুজ্জামান সাগর মোল্লা,বোয়ালিয়া ইউপি চেয়ারম্যান হালিমা বেগম প্রমুখ।

ডাঃ আবু জালাল জানান,১৮ বছরের অর্দ্ধে সকল নাগরিককে টিকা প্রদান করা হবে আগামী ৭ আগস্ট থেকে উপজেলার ৭টি ইউপিতে এ টিকা কার্যক্রম পরিচালিত হবে।৭,৮ও ১১ আগস্ট রতনদিয়া,বোয়ালিয়া,মদাপুর ও মৃগী ইউনিয়নের সাবেক ১ নং ওয়ার্ডে টিকা কার্যক্রম চলবে।৯,১০ ও ১২ আগস্ট কালিকাপুর,মাজবাড়ী ও সাওরাইল ইউনিয়নের সাবেক ১ নং ওয়ার্ডে চলবে।

কেন্দ্র গুলো হলো:রতনদিয়া ইউপির ইউনিয়ন পরিষদ ও মেধা চয়ন একাডেমী,কালিকাপু ইউনিয়নে রায়নগর মাদরাসা,বোয়ালিয়া ইউনিয়নে গৌরঙ্গপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়,চরচিলোকা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ইউনিয়ন উপ-স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স,মদাপুর ইউনিয়নে ইউনিয়ন পরিষদ,মাজবাড়ী ইউনিয়নে খামার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়,মৃগী ইউনিয়নে আখরজানি উচ্চ বিদ্যালয় ও নিয়ামতপুর উচ্চ বিদ্যালয়,সাওরাইল ইউনিয়নে মোহাম্মদ আলী একাডেমী,বিশাই সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও বড় সাওরাইল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ।

সূত্রে জানা যায়,৭ আগস্ট সকাল ৯ টা থেকে ১৮ বছর বয়সীসহ তার অর্দ্ধে সকল নাগরিক তার পরিচয় পত্র ও মোবাইল নম্বর নিয়ে সরাসরি কেন্দ্রে গিয়ে টিকা গ্রহণ করতে পারবে।প্রত্যেক কেন্দ্রে ৩টি করে বুথ থাকবে প্রত্যেক বুথে ২ জন টিকাদান কর্মী ও ৩ জন স্বেচ্ছাসেবক থাকবে প্রতিদিন ২০০শ জন করে প্রতি কেন্দ্রে একদিনে ৬০০শ ব্যক্তি টিকা পাবে।