রাজবাড়ী, ৯ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১

কোরবানীর জন্য ১ টন ওজনের কালা ও সাদা মাণিক প্রস্তুত

প্রকাশ: ৫ জুলাই, ২০২১ ৯:৪৬ : অপরাহ্ণ

॥ মাসুদ রেজা শিশির ॥রাজকন্ঠ ডট কম

পবিত্র ঈদুল আজহা সমাগত এই ঈদের প্রধান উপকরণ কোরবানী করা, সামর্থ্যবানদের উপর কুরবানী করা ওয়াজিব করেছেন মহান রব, হয়রত ইব্রাহিম (আ.) থেকে মুসলিম জাতি এ কুরবানী করে আসছেন মহান সৃষ্টিকর্তার সন্তুুষ্ঠ লাভের আশায়।

এই কুরবানীকে সামনে রেখে গরু ছাগল,ভেড়া প্রভৃতি পশু পালন করে আসছেন মানুষ। এ বছর মহামারী করোনার ভয়াল থাবায় পশুপালন কারীরা পরেছেন বিপাকে। স্থবির হয়ে পড়েছে গোটা দেশ,এখন দিশেহারা প্রায় ওই সব খামারীরা যারা পবিত্র কুরবানীকে সামনে রেখে প্রস্তুত করেছেন পশু। অনেকেই শখের বসে বানিজ্যিক ভাবেই বেছে নিয়েছেন পশু পালন।
রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার বাবুপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ ইমান আলী সরদারের ছেলে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মোঃ মনজুর সরদার সখের বসে পশু পালন করেছেন, করেছেন ২টি গরু পালন এক একটি গরুর ওজন প্রায় ১ টন করে।
তিনি জানান প্রতিটি গরুই দেশীয় খাবার দিয়ে তৈরী করা, কোন ঔষুধ প্রয়োগ ছাড়ায় আমাদের গরু আমরা পালন করেছি, খর,ছাল,আর কাচা খাস দিয়েই আমরা গরুর পরিচর্যা করে আসছি। এ বছর আমি আরো ২টি গরু বিক্রি করে দিয়েছি। এখন আমাদের কালা মানিক ও সাদা মানিক নামের ২টি গরু রয়েছে এ কুরবানীর ঈদকে সামনে রেখে বিক্রি করার ইচ্ছে আমাদের রয়েছে। তবে আমরা এখন পর্যন্ত গরুর দাম নির্ধারন করিনি,দেখে কারো পছন্দ হলে দাম ঠিক করা হবে।
ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ ইমান আলী সরদার বলেন আমার ছেলে প্রতি বছরই সখের বসে গরু পালন করে থাকে এবছরও করেছে পাংশা উপজেলায় এতো বড় গরু আর আছে কি না আমার জানা নেই।
মনছুর সরদার বলেন যদি প্রকৃত ক্রেতারা কেউ আমাদের এ গরু ক্রয় করতে আগ্রহী হন তা হলে রাজবাড়ী জেলার পাংশা উপজেলার বাবু পাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আমার পিতা ইমান আলী সরদার অথবা আমার সাথে ০১৭২৮-৪৫১৭২৪ যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ করা হইল। এ ছাড়াও পাংশা উপজেলার বিভিন্ন খামারীরা তাদের পালন কৃত গরু নিয়ে রয়েছে দুঃচিন্তায়।