রাজবাড়ী, ৮ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

আশুলিয়ার কাজ প্রিয় পরিশ্রমী একজন মেম্বার আবু তাহের মৃধা

প্রকাশ: ১৪ জুন, ২০২১ ৬:৫৫ : অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক, আশুলিয়া :

কথা নয় কাজে বিশ্বাসী, সেই কাজ প্রিয় পরিশ্রমী মানুষটি হলেন আশুলিয়ার ইয়ারপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৬ নং ওয়ার্ডের জনপ্রিয় সফল মেম্বার আবু তাহের মৃধা । সাম্প্রতি তিনি তার এলাকায় জনসাধারণের চলাচলে সুবিদার্থে ১০ ফিট চওড়া আরও একটি রাস্তার আরসিসি ঢালাইয়ের কাজ করেছেন।

সোমবার আশুলিয়ার ইয়ারপুর ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের আশুলিয়ার নরসিংহপুর কোনাপাড়া এলাকার ফরহাদের বাড়ি থেকে আলমের বাড়ি পর্যন্ত এলজিএসপি’র আওতাধীন আরসিসি রাস্তার কাজ শেষ করেন তিনি।

আশুলিয়ার অবহেলিত এই অঞ্চলটিতে এক সময় সাধারণ মানুষের চলাচলের জন্য তেমন কোনো পাঁকা কিংবা আরসিসি ঢালাইয়ের রাস্তা ছিলো না। জনসাধারনের এই দুর্দশা আর দুরবস্থা দেখে জনগনের সেবা করার উদ্যেশে ইউপি নির্বাচনে অংশগ্রহন করেন। জনসাধারনের এই জননেতা ইউপি সদস্য নির্বাচিত হয়ে ইতোমধ্যে এই ওয়ার্ডের রাস্তাঘাটসহ বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজের শতকারা ৮০ ভাগ সম্পন্ন করেছেন।

সড়কের পাশের ব্যবসায়ী আব্দুল কাদের বলেন, ‘এই রাস্তার কাজ করা হচ্ছে এতে আমরা খুব খুশি। আমাদের মেম্বার সাহেব অনেক ভালো লোক, তিনি রাস্তার ঘাটেরও অনেক উন্নয়ন করছে। আমরা সব সময় তার ভালোই দেখেছি, কখনোও খারাপ দেখি নাই। আমরা আগামীতেও উনাকে চাই।’

সড়কের পার্শ্ববর্তী বাড়ির মালিক ইদ্রিস আলী বলেন, ‘আমাদের মেম্বারকে আমরা যে কোনো সময় পাই, মনে করেন, ঈদের পরেদিনও আমি উনাকে দিয়ে একটা পত্যায়ন পত্র স্বাক্ষর করিয়েছি। কোনে দেরি করেনি। সাথে সাথে করে দিয়েছে। আমরা যখন ডাকি তখনি উনি সাড়া দেন। এ রকম মেম্বারই আমরা চাই। আগামীতে উনার বিকল্প কাউকে আমরা চিন্তা করছি না।’

এ ব্যাপারে আশুলিয়ার ইয়ারপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৬ নং ওয়ার্ডের মেম্বার আবু তাহের মৃধা বলেন, জনগন আমাকে ভালোবেসে ভোট দিয়েছে। তাদের সূখে-দুঃখে সব সময় তাদের সাথে থাকার চেষ্টা করেছি। ইতোমধ্যে আমি এই ওয়ার্ডের ৩২টি ফ্লাট সোলিং, ৪টি নতুন রাস্তা সহ বেশ কয়েকটি সিসি ও আরসিসি ঢালাই রাস্তার কাজ করেছি। এছাড়াও বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজের শতকারা ৮০ ভাগ সম্পন্ন করেছি। সূখে-দুঃখে এলাকাবাসীর সাথে থাকার চেষ্টা করেছি। তাই আমি মনেকরি আগামীতেও এলাকাবাসী আমার আমার ডাকে সারা দিবে। এলাকাবাসী যতদিন চান আমি ততদিন রাজনীতি করে যাবো।