রাজবাড়ী, ১০ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১

পাংশায় জেলা পরিষদ সদস্য আহম্মদ হোসেন ও সাবেক চেয়ারম্যান সোবহানের জামিন লাভ

প্রকাশ: ২০ মে, ২০২১ ১০:৫৬ : অপরাহ্ণ

॥মাসুদ রেজা শিশির ॥রাজকন্ঠ ডট কম

রাজবাড়ী জেলা পরিষদের সদস্য,পাংশা উপজেলার সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ আহম্মদ হোসেন ও শরিসা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুস সোবহান জামিনে মুক্তি লাভ করেছেন। বৃহস্পতিবার তারা এ জামিন পেয়েছেন।
ঈদের দিন গত ১৪ মে রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার সরিষা ইউনিয়নের বহলাডাঙ্গা কারিগড় পাড়ায় বর্তমান চেয়ারম্যান আজমল আল বাহার বিশ^াস ও সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুস সোবহানের কর্মী সর্মথকদে দুই পক্ষের মারমারি ও মসজিদে ভাংচুরের ঘটনা ঘটে এ হামলায় ৫টি অধিক মটর সাইকেল ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। ওই ঘটনায় পাংশা থানায় পাল্টা-পাল্টি মামলা দায়ের করা হয়।
ওই মামলা পাংশা থানা পুলিশের সদস্যরা রাজবাড়ী জেলা পরিষদের সদস্য ও পাংশা উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান আহম্মেদ হোসেন এবং পাংশা উপজেলার সরিষা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সোবাহানসহ ১৩ জনকে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারকৃতদের মঙ্গলবার সকালে আদালতে পাঠানো হয়। ওই দিন বিকালে অনুষ্ঠিত হয় জামিন শুনানী। শুনানী শেষে আদালতের বিচারক তাদেরকে কারাগারে পাঠিয়েছিল।

আজ বৃহস্পতিবার তারা জামির লাভ করেছেন। জামিন নিয়ে বের হয়ে আহম্মদ হোসেন বলেন আমাকে সড়যন্ত্র মূলক মামলা দিয়ে হয়রানীর চেষ্টা করা হয়েছে, সকল সত্য এক সময় উৎভাসিত হবেই। শরিসা ইউনিয়ন আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সোবহান বলেন আমার লোকদের মারধর করা হয়েছে গুলি করে আমাকে হত্যার চেষ্টা করেছে, আমার লোকদের মোরট সাইকেল ভাংচুর করা হয়েছে একই সাথে আমারসহ আমার নেতা কর্মীদের নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী করা হচ্ছে আজ আমাদের জামিন হয়েছে সামনের দিন আমার সকল নেতাকর্মী জামিনে মুক্তিলাভ করবে। শরিসার মানুষ আমাদের সাথে ছিল আছে থাকবে।