• শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল ২০২১, ০৫:২১ পূর্বাহ্ন

রাজবাড়ীতে কমরেড আবদুল হকের শততম জন্মবার্ষিকীতে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

Reporter Name / ৫৯ Time View
Update : বৃহস্পতিবার, ২৪ ডিসেম্বর, ২০২০

॥রাজবাড়ী প্রতিনিধি ॥রাজকন্ঠ ডট কম


বাংলাদেশ তথা ভারত উপমহাদেশের কিংবদন্তী কমিউনিস্ট বিপ্লবী নেতা কমরেড আবদুল হকের শততম জন্মবার্ষিকীতে রাজবাড়ীতে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
বুধবার(২৩ ডিসেম্বর) বিকাল ৩টায় ১ নম্বর রেলগেটের রিক্্রা ষ্ট্রান্ড চত্ত্বরে কমরেড আবদুল হকের ১০০তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন কমিটি উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হয়।
আলোচনা সভায় কমরেড আবদুল হকের ১০০তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন কমিটি আহবায়ক রবিউল আলম মিনুর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন , কমরেড আবদুল হকের ১০০তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন কমিটির সদস্য জাচ্চু রহমান ,নির্যাতন নিপীড়ন বিরোধ আন্দোলন ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব বাবলা চৌধুরী ,কুমিল্লার সোমপাড়া কলেজের প্রভাষক সেঁজুতি , গণতান্ত্রিক গণমোর্চার জেলা কমিটির আহবায়ক সামছুল হক , হোটেল শ্রমিক ইউনিয়নের রাজবাড়ী জেলা শাখার সহ-সভাপতি রিপন শেখ , সদস্য শরিফুল ইসলাম শরীফ ,মনিরুল ইসলাম মনি ,বিপ্লব কুমার সরকার , হারেজ সরদার সহ প্রমুখ।
অনুষ্ঠানের উপস্থপনা করেন , কমরেড আবদুল হকের ১০০তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন কমিটি সদস্য জামাল মন্ডল।
বক্তারা বলেন , ২৩ ডিসেম্বর কমরেড আবদুল হক এর ১০০তম জন্মবার্ষিকী। ১৯২০ সালের ২৩ডিসেম্বর যশোর জেলার সদর থানার খড়কিতে জন্মগ্রহণ করেন। এবং ২২ ডিসেম্বর ১৯৯৫ সালে তার মৃত্যু হয়। সামন্তবাদী পীর পরিবার থেকে আগত হলেও তিনি যখন কলকাতায় পড়াশুনা করতেন সেই ছাত্রাবস্থায় তিনি ভারতের কমিউনিস্ট পার্টির সংস্পর্শে আসেন এবং শ্রমিক এবং শ্রমিক শ্রেণীর মার্কসবাদী-লেনিনবাদী আদর্শে উদ্বুদ্ধ হয়ে বৈপ্লবিক কর্মকান্ড শুরু করেন। বৃটিশ আমল, পাকিস্তান আমল ও বাংলাদেশের সময়কালে তিনি অনেক আন্দোলন প্রত্যক্ষভাবে গড়ে তোলেন ও অংশ নেন- যেমন: ছাত্রজীবনে ১৯৩৯ সালে হলওয়েল মনুমেন্ট ভাঙ্গার আন্দোলন, ১৯৪৩ সালের মহা মন্বন্তরে কৃষকদের পাশে দাঁড়ানো, ১৯৪৪ সালে হাট তোলা বিরোধী আন্দোলন, ১৯৪৬ সালে তে-ভাগা আন্দোলন, ১৯৫০ সালে রাজশাহী জেলে খাপড়া ওয়ার্ড আন্দোলন, বিভিন্ন কৃষক আন্দোলনসহ ১৯৬৯ সালে গণআন্দোলন ও গণঅভ্যূত্থান এবং পরবর্তীকালে বাংলাদেশের বিপ্লবী আন্দোলন ইত্যাদি। এই সামগ্রিক সময়কালে তিনি কমিউনিস্ট আন্দোলনে অগ্রণী বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করেন। কমিউিনিষ্ট আন্দোলনের ক্ষেত্রে তিনি সংশোধনবাদের সকল প্রকাশের বিরুদ্ধে মতাদর্শগত সংগ্রাম চালিয়ে মার্কসবাদ-লেনিনবাদের লাল পতাকা সমুন্নত রেখেছেন। তিনি ক্রুশ্চেভ- ব্রেজনেভ-গর্বাচেভ মার্কা, তিন বিশ্ব তত্ত্ব ও মাও বাদ মার্কা-সেতুং চিন্তাধারা মার্কা সংশোধনবাদের বিরুদ্ধে এদেশ তথা উপমহাদেশে মতাদর্শিক সংগ্রামে বলিষ্ঠ নেতৃত্বকারী ভূমিকা গ্রহণ করেন।

Facebook Comments


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category

Recent Comments