রাজবাড়ী, ১১ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০

সঠিক কোরআন শিক্ষা ও ঝড়েপড়া শিশুর কোরআনীক শিক্ষার লক্ষ্যে

কালুখালীতে দারুন-নাজাত হাফিজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানার শুভ উদ্বোধন

প্রকাশ: ৭ নভেম্বর, ২০২০ ১০:১২ : অপরাহ্ণ

॥মোখলেছুর রহমান॥রাজকন্ঠ ডট কমরাজবাড়ীর কালুখালীতে শনিবার(৭নভেম্বর) কালিকাপুর ইউনিয়নের সাতোটা গ্রামে দুপুরে দারুন-নাজাত হাফিজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানার শুভ উদ্বোধন ও দোয়ার অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।
দারুন-নাজাত হাফিজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানার শুভ উদ্বোধন ও দোয়ার অনুষ্ঠান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন যশোর কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেট কমিশনার মুহাম্মদ জাকির হোসেন।

দারুন-নাজাত হাফিজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানার সভাপতি এবং যশোরের অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আকরাম হোসেনের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন রাজবাড়ী ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক মোঃ শাহাবুদ্দিন, জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থা (এনএসআই) রাজবাড়ীর উপ-পরিচালক শরিফুল ইসলাম, কালুখালী উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ আব্দুস সালাম, কালুখালী থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মাসুদুর রহমান, কালুখালী উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও কালিকাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ আতিউর রহমান নবাব,ভান্ডারিয়া সিদ্দিকিয়া কামিল মাদরাসার অধ্যক্ষ ও দারুন-নাজাত হাফিজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানার প্রধান উপদেষ্টা,রাজবাড়ী জেলা ইমাম কমিটির সভাপতি মাওলানা আবুল এরশাদ মুহাম্মদ সিরাজুম্মনির,পাংশা শাহজুঁই কামিল মাদরাসার অধ্যক্ষ মোঃ আবু মুছা আশয়ারী,উপজেলা সমাজসেবা অফিসার মোঃ জিল্লুর রহমান,স্বাগত বক্তব্য রাখেন মাদরাসার সহসভাপতি ও সাবেক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ইউনুস আলী প্রমুখ।প্রধান অতিথির বক্তব্যে কমিশনার কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেট যশোর মুহাম্মদ জাকির হোসেন বলেন আজ জজ আকরাম হোসেন যে কাজটি করলেন তা কোন ছোট কাজ নয় দুনিয়ার সবচেয়ে দাবী এবং আখেরাতে জান্নাতের সম্পদ হিসেবে কাজ করলেন আকরাম।কোরআন শেখার পাখির কারখানা এই পৃথিবীতে কয়জনা করতে চাই বা করে।তিনি বলেন আকরামের মত মানুষ সমাজে বড়ই অভাব তাই আজ এই ধরনের কাজে এলাকার সবার সার্বিক সহযোগীতা খুবই প্রয়োজন।তিনি এ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহন করতে পেরে নিজেকে ধন্য বলে মনে করেন। এসময় মাদরাসার শিক্ষকদের তিনি বিশেষ ভাবে অনুরোধ করেন কোরআন যেন জড় করে শেখানো না হয়।কোরআন শুধু পড়ার জন্য পড়া না শেখার জন্য শেখা না কোরআন পড়াতে হবে বুঝেশোনে অর্থসহ তাহলেই সত্যিকার অর্থে কোরআনের হাফেজ হওয়া যাবে।

সভাপতির বক্তব্যে মাদরাসার সভাপতি ও অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আকরাম হোসেনে বলেন এই হাফিজিয়া মাদরাসা করার লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য হলো আমাদের মৃতুর পর জান্নাত পাওয়ার বড় সুপারিশকারী হিসেবে।পাশাপাশি এই এলাকাটি নদী মাতৃক নদী ভাঙ্গন এলাকা হওয়ায় মানুষের অভাবের কারনে পড়ালেখা থেকে ঝড়ে পড়া শিশুর সংখা বেশি তাই পড়ালেখা থেকে ঝড়ে পড়া এবং অসহায় দরিদ্র শিশুদের শিক্ষার আলো দেখানোর জন্যই এই মাদরাসা তৈরি করা হয়েছে।এখানে এলাকার সকল মানুষের সার্বিক সহযোগীতায় আমি এই প্রতিষ্ঠাটিকে দেশের অন্যান্য হাফিজিয়া মাদরাসা থেকে পড়ালেখা পরিবেশ ও গুনাবলির দিক থেকে একটু আলাদা হিসেবে রুপ দিতে চাই।তিনি বলেন এই মাদরাসাটি আমার না এই মাদরাসাটি এলাকাবাসীর সবার সেই জন্য তিনি উপস্থিত অতিথিসহ এলাকার সকল মানুষের কাছে দোয়া ভালবাসা পারলে সার্বিক সহযোগীতা একান্তভাবে কামনা করেন।

Facebook Comments