রাজবাড়ী, ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, রোববার, ২৯ নভেম্বর ২০২০

কবি তহমিনা মুন্নির…….বিশুদ্ধ সমীরণ কাব্যগ্রন্থে লেখা কিছু কথা

প্রকাশ: ২৩ অক্টোবর, ২০২০ ৯:০৩ : অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:রাজকন্ঠ ডট কম

সমস্যা সমাকীর্ণ সমাজে সমৃদ্ধ বিশুদ্ধ সাহিত্যই সর্বাধিক সফলতার সাত্ত্বিক সমাধান।
সাহিত্য সম্পদ, সত্যিকারার্থে জীবন ও জগতের সাবলীল উৎকর্ষতার বিকাশ ঘটায়।মানব জীবন আশার কুহুকজনিত ব্যর্থতা -গ্লানির স্বরুপ।আশা- আকাঙ্ক্ষা মানব জীবনকে পরিচালনা করে।সমগ্র জীবনের চিরাচরিত রুপকতার আলোকে সৃজিত হয় গল্প কবিতা।এখানে যেমন জ্ঞান,দর্শন, তত্ত্ব ও জীবনবোধের প্রকাশ ঘটানো হয় তেমনি সমাজের বিভিন্ন শ্রেণীর মানুষের আবেগ অনুভূতি, সুখ-দু:খ এবং জীবন চিত্র ও পরিস্ফুটিত হয়।তারই আলোকে আমার দ্বিতীয় কাব্যগ্রন্থ ” বিশুদ্ধ সমীরণ ” চলমান জগতের সবকিছুই পরিবর্তনশীল।সভ্যতা গড়ে,সভ্যতা হারিয়ে যায়।মানুষ আসে মানুষ ও হারিয়ে যায়।এ গতিময় জীবন ধারায় সবচেয়ে সত্য সবচেয়ে অক্ষয়রুপে টিকে আছে মানুষের প্রতি মানুষের বিশুদ্ধ ভালবাসা। সেখানে কোনো স্বার্থ নেই।নি:স্বার্থ এই ভালবাসায় রয়েছে স্বর্গীয় অনুভূতি। এই স্বর্গীয় ভালবাসাই প্রমাণ করে যা কিছু সত্য যা কিছু সুন্দর তা চিরস্থায়ী। সেখানে মিথ্যার কোনো অস্তিত্ব নেই।হয়ত সাময়িকভাবে সত্যকে ধামাচাপা দেয়া যায় কিন্তু সত্যকে উঁপচে ফেলা যায় না।শত বাঁধা উপেক্ষা করে ঘুরে ফিরে সত্যের ফুল বারবার ফুটে।আর সেই ফুলের আবেশ বিশুদ্ধ সমীরণে দিক-দিগন্তে বিস্তার লাভ করে।যাঁদের অতলান্ত ভালবাসায় কবি মনের অভিব্যক্তি তাদের কৃতিত্বেই ধ্বনিত হোক আমার “বিশুদ্ধ সমীরণ ”

কবির লেখা তিনটি কাব্য গ্রন্থ হলো
১ম: কাব্যগ্রন্থ কবিতায় না বলা কথা।
২য়: কাব্যগ্রন্থঃ অন্তঃলোকের অনড় রথে।
তয়: কাব্যগ্রন্থ বিশুদ্ধ সমীরণ।

Facebook Comments