রাজবাড়ী, ৯ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, রোববার, ২৫ অক্টোবর ২০২০

উপজেলা মৎস্য দপ্তরের আয়োজনে

কালুখালীতে জেলেদের নিয়ে সচেতনতামূলক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশ: ১৫ অক্টোবর, ২০২০ ১০:২৮ : অপরাহ্ণ

॥ নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ রাজকন্ঠ ডট কম

রাজবাড়ীর কালুখালীতে উপজেলা মৎস্য দপ্তরের আয়োজনে ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুমে মা ইলিশ রক্ষায় মৎস্যজীবিদের নিয়ে সচেতনতামূল আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
বৃহস্পতিবার(১৫ অক্টোবর) দুপুর ২ টায় রতনদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে মৎস্যজীবিদের নিয়ে সচেতনতামূলক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা নিবার্হী অফিসার আব্দুল্লাহ্ আল মামুন।
অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা সহকারী কমিশনার(ভূমি)শেথ নুরুল আলম,উপজেলা মৎস্য অফিসার আব্দুস সালাম,রতনদিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও রতনদিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মেহেদী হাচিনা পারভীন নিলুফা,রতনদিয়া ট্যাগ অফিসার ও উপজেলা শিক্ষা অফিসার আব্দুর রশিদ প্রমুখ।
এসময় উপজেলা নিবার্হী অফিসার আব্দুল্লাহ্ আল মামুন বলেন দেশের জাতীয় সম্পদ রক্ষা করতে সকল মানুষের সার্বিক সহযোগীতা প্রয়োজন,বর্তমান সরকারের ভাবমূতি নষ্ট হবে এমন কাজ কালুখালী উপজেলা আমি থাকতে কখনো করতে দেওয়া হবে না।তিনি বলেন মাত্র ২২ দিন একটু কষ্ট করে আপনাদের চলতে হবে। আইন অমান্য করে নদীতে মাছ ধরতে গেলে অবশ্যই তাকে বড় ধরনের শাস্তি পেতে হবে কেও কাওকে সুপারিশ করে কোন লাভ হবে না।বিশেষ করে কোন জনপ্রতিনিধি এই ব্যাপারে সুপারিশ করলে তার বিরুদ্ধে আইন ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
তিনি আরো বলেন আমার উপজেলা নিবাহী অফিসারের দরজা সবার জন্য খোলা কোন ধরনের বিপদে পড়লে আপনারা সরাসিরি আমার কাছে যাবেন আমি চেষ্টা করবো আপনাদের সমস্যার কথা শোনে সেটা সমাধান করার।কিন্তু আমার কথা বা আইন অমান্য করে নদীতে মাছ ধরতে গেলে অবশ্যই প্রথমে নৌকা জাল ধংস করা হবে তার পর জেল জরিমানা শতভাগ হবে।এসময় তিনি উপস্থিত সবাইকে অনুরোধ করে বলেন আপনারা কেও আইন অমান্য করবেন না আইনের প্রতিশ্রদ্ধা রেখে সরকারের সার্বিক সহযোগী করবেন তাহলে সবাই ভাল থাকবেনে দেশ উন্নয়ন হবে জাতীয় সম্পদ বৃদ্দি পাবে আমরাবছর জুড়ে ইলশ মাছ খেতে পারবো।
উপজেলা মৎস্য অফিসার আব্দুস সালাম বলেন আমি চেষ্টা করছি সততার সাথে আল্লাহকে ভয় করে দায়িত্ব পালন করার।এসময় তিনি উপস্থিত থেকে জেলেদের সঠিক ২০ কেজি করে চাউল প্রদান করেন।

আলোচনা সভা শেষে ২০২০-২১ অথবছরে প্রধান প্রজনন মৌসুমে ইলিশ আহরণ নিষিদ্ধ সময়ে মানবিক খাদ্য সহায়তা কমসূচীর আওতায় ভিজিএফ(চাল) রতনদিয়া ইউপির ১৪০ জন জেলেকে নীট ২০ কেজি করে চাল বিতরণ করা হয়।
উল্লেখ্য উপজেলায় মোট ৩১০ জন মৎস্যজীবিদেরকে ২০ কেজি করে চাউল প্রদান করা হবে।এদিকে মা ইলিশ রক্ষায় ব্যাপক প্রচারনা ও অসংখক সচেতনতামূলক আলাচনার মাধ্যমে সভা শেষ করা হয়।
পরে মা ইলিশ রক্ষা অভিযানের ২য় দিনে উপজেলার রতনদিয়া বাজারসহ বিভিন্ন বাজারে ব্যাপক অভিযানে কোন ইলিশ পাওয়া নি।

Facebook Comments