রাজবাড়ী, ৮ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০

করোনার করুন সময়ে

রতনদিয়া ইউনিয়নে কাউকে খাদ্যহীন থাকতে দেওয়া হবে না : ইউপি চেয়ারম্যান নিলুফা

প্রকাশ: ১৩ জুন, ২০২০ ৮:২৩ : অপরাহ্ণ

মোখলেছুর রহমান ॥রাজকন্ঠ ডট কম

বাংলাদেশে সরকার করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে সারাদেশকে লকডাউন ঘোষণা করেছে। লকডাউনের কারণে কর্মহীন হয়ে পড়েছে শত শত মানুষ। জীবন জীবিকার তাগিদ থাকলেও ঘর থেকে বের হতে পারছেনা কেউ। তাই অসহায় এসকল কর্মহীন মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে বর্তমান সরকার। নানা শ্রেণীর এসকল অসহায় কর্মহীন মানুষের খাদ্য সহায়তা কর্মসূচীর মাধ্যমে বিতরণ করছেন ত্রাণ সামগ্রী। এসকল ত্রাণ সামগ্রী স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে দরিদ্র অসহায় মানুষের মাঝে বিতরণ করা হচ্ছে।

এ ধারাবাহিকতায় রাজবাড়ী জেলার কালুখালী উপজেলাতেও সরকারি এসকল ত্রাণ সামগ্রী সুষ্ঠু ও সুন্দর ভাবে বিতরণ করছেন ইউপি চেয়ারম্যানগণ।

১৩ জুন শনিবার দুপুরে নিজ কার্যালয় হতে সাক্ষাৎকালে রাজবাড়ী জেলার কালুখালী উপজেলার সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মেহেদী হাচিনা পারভীন নিলুফা তিনি জানান, করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবেলায় শুরু থেকেই আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশ রতœ শেখ হাসিনার নির্দেশনা মোতাবেক রাজবাড়ী জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও রাজবাড়ী-২ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জিল্লুল হাকিম এমপির প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে ও তার জ্যেষ্ঠ পুত্র জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আশিক মাহমুদ মিতুল এর সহযোগিতায় আমার ইউনিয়নে প্রতিনিয়তই ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করে যাচ্ছি।

নিলুফা আরো বলেন আমি করোনার শুরু থেকে এ পর্যন্ত ৯ বার সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে করোনায় কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায় ৩হাজার ৫শত ৭০টি পরিবারকে প্রায় ৩৫টন ৭শত ৭০ কেজি চাউল সাথে ডাউল আলু মিষ্টি কুমড়া সেমাই চিনি ডিম তৈল বিতরণ করেছি।
এসময় রতনদিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মেহেদী হাচিনা পারভীন নিলুফা আরো বলেন আমি চেয়ারম্যান থাকালিন সময়ে আমার ইউনিয়নে কোন লোককে খাদ্যের অভাবে মৃত্যু বরণ করতে দেওয়া হবে না,আমার লক্ষ্য হলো আমি সুস্থ থাকলে এমপি মহোদয়ের সাথে সার্বক্ষনিক যোগাযোগ করে তার নেতৃত্বে মানুষের সেবা করে যেতে চাই।

তিনি বলেন আমি আল্লাহর উপর ভরসা করে করোনাকে করিনি ভয় করোনাকে করতে চাই জয় এই সাহস নিয়ে করোনার শুরু থেকে আজ পর্যন্ত সকাল সন্ধ্যা দেখিনি কে কোথা থেকে এলো সেটাও বিচার করিনি সবার সাথে মিলে মিশে কাজ করে চলছি।

তিনি আরো বলেন, দেশের বর্তমান পরিস্থিতি মোকাবেলায় আমার ইউনিয়নে যেন কেউ না খেয়ে থাকে, কেউ না খেয়ে থাকলে তারা যেন আমার মোবাইল নম্বরে যোগাযোগ করে তাহলে আমি তাদের খাদ্যের ব্যবস্থা করবো।
এছাড়াও করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের শুরু থেকেই আমি ইউনিয়নের কর্মহীন মানুষের নির্ভুল তালিকা প্রণয়ন করে সরকারের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করে যাচ্ছি। এরপরেও যদি কেউ বাদ পড়ে যায় তবে তা একান্তই অনিচ্ছাকৃত। অনুগ্রহ করে বিষয়টি আমাকে অবগত করুন।

রতনদিয়া ইউনিয়নের একটা মানুষও যেন খাদ্যহীন না থাকে সেজন্য তিনি সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

মেহেদী হাচিনা পারভীন নিলুফা উপজেলার একজন বীরমুক্তিযোদ্ধা ও আদর্শ শিক্ষক মরহুম মোকছেদ আলী মন্ডলের সুযোগ্য কন্যা। তিনি তার পিতাকে হারিয়েছেন ১০ই জানুয়ারী ২০১০ সালে,তিনি ২০১৬ সালের ৪ঠা আগষ্ট রতনদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন। তারপর থেকে তিনি অত্যন্ত সুনামের সাথে চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করে আসছেন।এদিকে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ত্রী-বার্ষিক কাউন্সেলের মাধ্যমে গত ২০১৯ সালের ২৯ অক্টোরব উপজেলার সদর ইউনিয়ন রতনদিয়া আওয়ামীলীগের সভাপতির দায়িত্ব পান।

Facebook Comments