রাজবাড়ী, ৯ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, রোববার, ২৫ অক্টোবর ২০২০

লকডাউনে ৬ কোটি মানুষ দরিদ্র হয়েছে: অর্থনীতি সমিতি

প্রকাশ: ৮ জুন, ২০২০ ২:০৭ : অপরাহ্ণ

নিউজ ডেস্ক:রাজকন্ঠ ডট কম

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব মোকাবিলায় লকডাউনের ৬৬ দিনে বাংলাদেশের প্রায় ৬ কোটি মানুষ নতুন করে দ্ররিদ্র হয়েছে বলে দাবি করেছে বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতি।

সোমবার (৮ জুন) ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আসন্ন ২০২০-২০২১ অর্থবছরের জন্য বিকল্প বাজেট প্রস্তাবনা উপস্থাপনকালে সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. আবুল বারকাত এসব তথ্য উপস্থাপন করেন।

আবুল বারাকাত বলেন, ‘করোনাভাইরাসের কারণে বিশ্ব এখন মহা বিপর্যায়কাল অতিক্রম করছে। ২১৩টি রাষ্ট্র ও ৮০০ কোটি মানুষ আজ মহাসংকটে। এ ভাইরাসের কারণে অর্থনীতির হিসাবে ক্ষতির পরিমাণ গতকাল পর্যন্ত ৮.৮ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলার।  আইএলও’র হিসাবে বিশ্বের ৫০ ভাগ জীবিকা হারাবেন। আর বাংলাদেশের ১৭ কোটি মানুষও একই পথের পথিক। তাই আসন্ন বাজেট হবে কোভিড থেকে মুক্তির বছর।’

তিনি বলেন, ‘কোভিড-১৯ এর কারণে দ্ররিদ্র মানুষের বেহাল অবস্থা। লকডাউনের ৬৬ দিনে নবদরিদ্র ও অতি দরিদ্র সৃষ্টি হয়েছে ৫ কোটি ৯৫ লাখ বা প্রায় ৬ কোটি। শ্রেণি কাঠামোর ব্যাপক পরিবর্তন হয়েছে।’

অর্থনীতি সমিতির সভাপতি দাবি করেছেন, লকডাউনে ১ কোটি ৭০ লাখ অতি ধনী শেণির কোনো পরিবর্তন হয়নি। বরং কোনো ধনী আরও ধনী হয়েছেন। তবে আগের ৩ কোটি ৪০ লাখ উচ্চ মধ্যবিত্ত থেকে মধ্য মধ্যবিত্ত হয়েছে ১ কোটি ১৯ লাখ, ৩ কোটি ৪০ লাখ মধ্য মধ্যবিত্ত থেকে ১ কোটি ২ লাখ হয়েছে নিম্ন মধ্যবিত্ত, ৫ কোটি ১০ লাখ নিম্ন মধ্যবিত্ত থেকে ১ কোটি ১৯ লাখ দরিদ্র এবং তিন কোটি ৪০ লাখ দরিদ্র থেকে ২ কোটি ৫৫ লাখ অতি দরিদ্র হয়েছে। ৬৬ দিনে সব মিলিয়ে ৫ কোটি ৯৫ লাখ নতুন করে দরিদ্র ও অতি দরিদ্র হয়েছে।

প্রস্তাবনার শুরুতে সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক ড. জামালউদ্দিন আহমেদ স্বাগত বক্তব্য রাখেন। এবারের ২০২০-২১ অর্থবছরে বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির বিকল্প বাজেট প্রস্তাবনায় করোনার (কভিড-১৯) মহাবিপর্যয় থেকে মুক্তি ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বাংলাদেশ বিনির্মাণের বিষয়টি প্রাধান্য পায়। ভিডিও কনফারেন্সটি অর্থনীতি সমিতির নিজস্ব ফেসবুক পেজ থেকে প্রচারিত হয়।

Facebook Comments