রাজবাড়ী, ৮ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

আবারও মানবতার দৃষ্ঠান্ত স্থাপন করলেন ওসি আহসান উল্লাহ করোনায় মৃত ব্যক্তির দাফন সম্পন্ন

প্রকাশ: ৭ জুন, ২০২০ ১:৪৫ : অপরাহ্ণ

মাসুদ রেজা শিশির ॥ রাজকন্ঠ ডট কম

করোনা ভাইরাসের প্রার্দূভাবের শুরু থেকেই নানা প্রশংসনীয় কাজ করে পাংশা থানা এলাকার মানুষের মনে স্থান করে নিয়েছেন পাংশা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আহসান উল্লাহ। উপজেলার বাহাদুরপুর ইউনিয়নের সেনগ্রামে প্রথম করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া রোগীর দাফনের মধ্য দিয়ে শুরু হয় অনন্য দৃষ্ঠান্ত। এর পর থেকে একে একে করে চলছেন নিজ গতিতে নানা প্রশংসনীয় কাজ। মানষিক প্রতিবন্ধী অপরিচিত এক বৃদ্ধা নারীর রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে চিকিৎসার ব্যবস্থা পরে ১৬ দিন চিকিৎসা নেওয়ার পর ওই রোগীর মৃত্যু হলে হাসপাতাল থেকে নিজ দায়িত্বে লাশ বুঝে নিয়ে তার দাফন কার্যকরে মানবতার অনন্য এক দৃষ্ঠান্ত স্থাপন করেন ওসি আহসান উল্লাহ। এ থেকে পাংশা বাসি তাকে মানবতার ফেরীওয়া,মানবিক ওসি বিভিন্ন ভাবে আখ্যায়িত করে চলছেন। ৬ জুন রাত ৯ টায় রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার যশাই ইউনিয়নের সমশপুর গ্রামে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ঢাকায় মৃত্যু বরণ করা ব্যাক্তির লাশ দাফন করে পূনরায় মানব সেবার অনন্য দৃষ্ঠান্ত স্থাপন বরেছেন মানবিক ওসি আহসান উল্লাহ। করোনা আক্রান্ত মৃত ব্যাক্তির নাম আবু ইউনুস (৪৩) তার পিতার নাম মোঃ রমজান শেখ। মৃত ইউনুস করোনা ভাইরাসের হট স্পট নারায়নগঞ্জের বসুন্ধরা প্যাকেজিং নামক প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ছিলেন। গত ২জুন করোনা আক্রান্ত হয়ে তিনি ঢাকা মেডিক্যালে ভর্তি হন চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৬ জুন তার মৃত্যু হয়। পরে সেখান থেকে তার লাশ গ্রামের বাড়ী পাঠানো হয় । কিন্তু ওই মৃত ব্যাক্তির লাশ তার কোন স্বজন এ্যম্বুলেন্স থেকে নামায়নি এমন সংবাদ পেয়ে পাংশা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আহসান উল্লাহ ৮জন পুলিশ সদস্য নিয়ে সেখানে গিয়ে স্বাস্থ্য বিধি মেনে তার লাশ নামিয়ে দাফন করেন। এ সময় মৃত ব্যাক্তির পিতা মোঃ রমজান শেখ,পাংশা উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ কামাল আল মামুনসহ ১২-১৩ জন উপস্থিত ছিলেন। স্থানীয়রা বলেন এমন মানবিক ওসি আমরা পাংশাতে এর আগে আর দেখিনি। পাংশা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আহসান উল্লাহ বলেন মানবিক কারনেই আমরা তার দাফন কাজে অংশ নিয়েছি।