রাজবাড়ী, ৮ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

মিতুল হাকিমের অর্থায়নে ঢাকায় চিকিৎসকদের পি.পি.ই বিতরণ

প্রকাশ: ১৩ মে, ২০২০ ৪:৩৫ : অপরাহ্ণ

মাসুদ রেজা শিশির ॥ রাজকন্ঠ ডট কম
রাজবাড়ী জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি রাজবাড়ী-(পাংশা,কালুখালী-বালিয়াকান্দি) আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জিল্লুল হাকিমের জেষ্ট পুত্র বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও তরুন সমাজ সেবক রাজবাড়ী জেলা আওয়ামলীগের অন্যতম সদস্য আশিক মাহমুদ মিতুল হাকিমের পূর্ণ অর্থায়নে ঢাকাস্থ রাজবাড়ীর চিকিৎসকদের মাঝে ব্যক্তিগত সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ করেছে সামাজিক সংগঠন ট্রিড।

করোনা দুর্যোগের শুরু থেকেই রাজবাড়ীর সিভিল সার্জন ও অন্যান্য কর্মকর্তার সাথে সমন্বয় করে তিনি পাংশা, বালিয়াকান্দি ও কালুখালি উপজেলার দুর্যোগ মোকাবিলায় সার্বিক সহযোগীতার আশাবাদ ব্যক্ত করেন। সেই অনুযায়ী তিনি এই তিন উপজেলার সকল স্বাস্থ্য কেন্দ্রে কর্মরত চিকিৎসকসহ সকল স্বাস্থ্যকর্মীর মাঝে ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জামাদি তথা পি.পি.ই,মাস্ক,গগলস বিতরণ করেন। এছাড়াও ইতোমধ্যে তিনি ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল টিম গঠন করে বাড়ী বাড়ী স্বাস্থ্যসেবা পৌছে দেয়ার এক অনন্য উদ্যোগ হাতে নিয়েছেন।
তিনি প্রসূতি মায়ের বিশেষ সেবা প্রদানের জন্য যে উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন সেটিও সর্বমহলে প্রশংসিত হয়েছে।

তার উদ্যোগগুলোর মধ্যে আরেকটি উদ্যোগ জনমনে সাড়া ফেলেছে,সেটি হল বিশেষ শিশু খাদ্য সরবরাহ করা। করোনা মোকাবিলায় কোন শিশু যেন অপুষ্টিতে না ভোগে,সেই সংকট তিনি এই বিশেষ সেবা চালু করেছেন। ইতোমধ্যে তিনি প্রায় দশহাজার শিশুকে এই বিশেষ সেবার আওতাভূক্ত করেছেন। উল্লেখিত তিন উপজেলার একজন মানুষও যেন অভুক্ত না থাকে সেই লক্ষ্যে তিনি করোনা প্রাদুর্ভাবের প্রথম থেকেই সোচ্চার এবং বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন,আওয়ামিলীগ ও তার সহযোগী সংগঠনগুলোর মাধ্যমে অত্যন্ত সফলতার সাথে অভুক্ত মানুষের দোরগোড়ায় তার ত্রাণ সামগ্রী পৌছে দিচ্ছেন।

সম্প্রতি ঢাকায়, রাজবাড়ী জেলার যে সকল কৃতি সন্তান চিকিৎসক হিসেবে কর্মরত আছে তাদের ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জামাদির সংকটের কথা ট্রিড নামে একটি সামাজিক সংগঠন তার দৃষ্টি আকর্ষণ করলে, তিনি পরিস্থিতির প্রয়োজনীয়তা উপলব্ধি করে সম্মতি প্রদান করেন এবং তিনি ট্রিডের মাধ্যমে ২৬ জন চিকিৎসক ও ৫ জন জরুরী সেবায় নিয়োজিত ব্যক্তির মধ্যে ৫৭ টি গাউন, ৫২ টি এন-৯৫ মাস্ক,৬২ টি কে,এন-৯৫ মাস্ক,৩১টি গোগলস ও ৩১টি ফেস শিল্ড বিতরণ করেন।

প্রতিটি উপহার বাক্সের সাথে তিনি চিকিৎসকদের জন্য একটি চিরকুট পাঠান, সেখানে লেখা ছিল-”শ্রদ্ধেয় চিকিৎসকবৃন্দ,দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে,নিজেদের বিপদ সম্ভাবনাকে তুচ্ছজ্ঞান করে আমাদের পাশে থাকার এই মানসিকতাকে জানাই আন্তরিক ধন্যবাদ এবং আপনাদের প্রতি রইলো আমাদের কৃতজ্ঞতা আপনাদের মত বীরদের পাশে থাকার প্রত্যয় জানিয়ে আমাদের এই ক্ষুদ্র প্রয়াস”

এই সেবার আওতায় অধ্যাপক থেকে শুরু করে শিক্ষানবিশ চিকিৎসক যেমন রয়েছেন আবার জরুরী সেবাদানকারীদের মধ্যে স্বাস্থ্যকর্মী থেকে শুরু করে সাধারণ স্বেচ্ছা সেবীরাও রয়েছেন ।

করোনা মোকাবিলায় দেশের অনেক রাজনীতিবিদ যখন নানা রকম বিতর্কে জড়িয়ে পড়েছে, তখন স্রোতের বিপরীতে হাটা নতুন দিনের সবুজ প্রাণওয়ালা এই রাজনীতিবিদের এই রকম কার্যক্রম আমাদেরকে যেমন একদিকে স্বস্তি এনে দেয় অন্যদিকে মিতুল হাকিম সকল তরুণদের জন্য একরাশ অনুপ্রেরণাও এনে দেয়। ট্রেড এর পক্ষ থেকে আশিক মাহমুদ মিতুল হাকিমকে ধন্যবাদ জানান ট্রেড’র সকল সদস্যবৃন্দ। আশিক মাহমুদ মিতুল সাধারণ মানুষের মধ্যে কর্মের মধ্য দিয়ে বেচেঁ থাকবে আজীবন এমন ধারনা পাংশা কালুখালী-বালিয়াকান্দির লাখো তরুনের।