রাজবাড়ী, ৯ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, বৃহস্পতিবার, ২৪ নভেম্বর ২০২২

পাংশার হাবাসপুরে সংর্ঘস বাড়ী ভাংচুর আহত-২

প্রকাশ: ৯ মে, ২০২০ ৪:১৪ : অপরাহ্ণ

প্রিন্ট করুন

পাংশা প্রতিনিধি ॥রাজকন্ঠ ডট কম

রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার হাবাসপুর ইউনিয়নের উদয়পুর গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা মৃত কফিল উদ্দিন বিশ্বাসের ছেলে মনজুকে বেধরক মারপিট করার অভিযোগ উঠেছে। একই ঘটনায় মনজুর বোন ময়নার বাড়ী ভাংচুর করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মনজু। মনজু জানান আমাকে রাতের আধারে মারপিট করেছে চরঝিকড়ী গ্রামের ফিরোজ প্রামানিক, শফিকুল প্রামানিক, রুবেল প্রমানিক, অনিক প্রামানিক, জিহাদ প্রামানিক, টিটু প্রামানিক গত ৪ মে সন্ধ্যা রাতে চায়ের দোকানে বসে ছিলাম তখন উপরোক্ত লোকজন আমাকে অর্তকৃত ভাবে আমার উপর হামলা করে। এ ঘটনার ২দিন পর বৃহস্পতিবার আমার বোন ময়নার বাড়ী ভাংচুর করেছে একই ব্যক্তিরা। এ নিয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে মনজু জানিয়েছে। উদয়পুর গ্রামে মনজুর ভগ্নিপতি জালাল উদ্দিন খা বলেন-আমার সালা মনজুকে কয়েক জন মারপিট করার ২দিন পর আমার ছেলে আকাশ অনিকের পিতা বিল্লালের সাথে কথা কাটাকাটির এক পর্যায় আকাশ তাকে কিল ঘুুষি দেয়। এরপর বিল্লাল ও তার লোকজন ২০/২৫ মিলে দেশীয় অস্ত্র স্বস্ত্র নিয়ে আমার বাড়ীতে এসে ভাংচুর করে। অপর দিকে বিল্লালের পরিবার ও এলাকা বাসি জানান মনজু ও মোস্তফাসহ আরো কয়েকজন প্রায়ই আমাদের এলাকায় এসে রাতের বেলায় নেশা করে নেশার কারনে এলাকার যুবসমাজ ধংস হচ্ছে এদিকে প্রায় ওই এলাকায় চুরির ঘটনা ঘটছে ওই রাতে এলাকাবাসি চোর সন্দেহে তাদের মারপিট করা হয়েছে। বিল্লালের পরিবারের দাবী জালাল খা’রা নিজেরাই বাড়ী ভাংচুর করে অন্যন্যের ঘাড়ে দোষ দেওয়ার চেষ্ঠা করছে। বিল্লাল খা আহত অবস্থায় পাংশা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এ ব্যাপারে হাবাসপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল আলীম মন্ডল বলেন-আমি চেষ্ঠা করছি উভয় পক্ষকে নিয়ে বসে বিষয়টি মিমাংসা করে দেওয়ার।