রাজবাড়ী, ৯ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, বৃহস্পতিবার, ২৪ নভেম্বর ২০২২

ঢাকামুখী যাত্রীর চাপ দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে,যাত্রী বলছে নিরুপায়

প্রকাশ: ৯ মে, ২০২০ ৩:৪৭ : অপরাহ্ণ

প্রিন্ট করুন

কাজী হুমায়ন:রাজকন্ঠ ডট কম

 

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দের দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে রাজধানী ঢাকামুখী মানুষের চাপ রয়েছে। কর্মমূখী মানুষের চাপে ঘাট এলাকা দীর্ঘ দেড় মাস পড়ে প্রাণ ফিরে পেয়েছে।

তবে করোনার কারনে এই নৌরুটের লঞ্চ চলাচল বন্ধ থাকায় যাত্রীরা ফেরি দিয়ে পার হচ্ছে নদী। গাদাগাদি করেই তারা নদী পার হচ্ছে। যার কারনে ঘাট এলাকায় সামাজিক দূরত্বের কোন অস্তিত্বই মিলছেনা।

একে অপরের সাথে মিলেমিশে একেকটি ফেরিতে ১০০-১৫০ জন যাত্রী রয়েছে। ফলে ফেরিতে কোন ফাঁকা জায়গায়ই নেই।

শনিবার (৯ মে) ভোর থেকেই এই নৌরুটে যাত্রীর চাপ বাড়তে থাকে। বেলা বাড়ার সাথে সাথে সেই চাপ আরো বৃদ্ধি পায়।

কথা হয় গার্মেন্টসকর্মীহালিমা পারভীনের সাথে তিনি রাজকন্ঠকে বলেন, আমি গাজীপুর যে গার্মেন্টসে চাকরি করি সেটা অনেক আগেই খুলেছে। আমি করোনার ভয়ে প্রথম দিকে যেতে অস্বীকৃতি জানায়। কিন্তু কর্তৃপক্ষ বলেছে ১০ তারিখের মধ্যে কর্মস্থলে না পৌঁছালে চাকরি থাকবেনা। কোন উপায় না পেয়ে অবশেষে ছুটছি।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহনের (বিআইডব্লিউটিসি) দৌলতদিয়া ঘাটের শাখা ব্যবস্থাপক আবু আব্দুল্লাহ রনি রাজকন্ঠকে বলেন, করোনার কারনে এই নৌরুট দিয়ে ৫ টি ফেরি চলছে। এরমধ্যে ২ টি বড় ও ৩টি ছোট। এগুলো শুধু জরুরী যানবাহন পার করার জন্য। কিন্তু গার্মেন্টস খুলে দেওয়ায় মানুষ ঢাকামুখী হচ্ছে। আর লঞ্চ বন্ধ থাকায় সবাই ফেরিতে করেই নদী পার হচ্ছে।