রাজবাড়ী, ১০ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, শুক্রবার, ২৫ নভেম্বর ২০২২

পাংশায় নিহত ধান কাটা শ্রমিক কৃষকের পরিবারের পাশে কেন্দ্রীয় কৃষকলীগ নেতা হক

প্রকাশ: ৬ মে, ২০২০ ৮:৩৩ : অপরাহ্ণ

প্রিন্ট করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক:রাজকন্ঠ ডট কম

 

রাজবাড়ীর পাংশার উপজেলার হাবাসপুর ইউনিয়নের চরঝিকরী গ্রামের কৃষি শ্রমিক সাহিল খান বরিশালে ধান কাটতে গিয়ে মারা যাওয়া পাংশার নিহত ধান কাটা কৃষি শ্রমিক সাহিল খার এ অবস্থায় তার পরিবারের পাশে মানবিক দৃষ্টান্ত রাখলেন বাংলাদেশ কৃষকলীগীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও প্রস্তাবিত বৃহত্তর ফরিদপুর বিভাগের ধান কাঁটার প্রধান সমন্ময়কারী নূরে আলম সিদ্দিকী হক।

বুধবার সকালে তার পক্ষ থেকে সাহিলের স্ত্রীর হাতে নগদ ১০ হাজার টাকা তুলে দেয়া হয়।

জানাগেছে, রাজবাড়ীর হাবাসপুর ইউনিয়নের চরঝিকড়ী গ্রামের মোঃ সলিম খার ছেলে মোঃ সাহিল খা (৩৬) ধান কাটা শ্রমিক হিসেবে গত ১ মে বরিশাল জেলার গৌরনদী উপজেলায় যায়। সেখানে পরদিন ২ মে সকাল ৯টার ধান কেটে বোঝা মাথায় নিয়ে আসার পথে রাস্তার উপর তিনি পড়ে যায়। স্থানীয়রা তাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলেও কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। ওই ঘটনার পর দিন মরদেহ পাংশায় এনে দাফন করা হয়। পরিবারের একমাত্র উপার্জন কারীর মৃত্যুতে ভিশন ভাবে অসহায় হয়ে পড়ে তার স্ত্রী। সংসার চালাতে দূচিন্তায় পড়তে হয় তাকে। এমন সময় কৃষকলীগ নেতা নূরে আলম সিদ্দিকী হকের সহযোগীতা পেয়ে তারা বড় উপকার হয়েছে বলে জানান পরিবারটি।
অসহায় সাহিল খার সংসারে রয়েছেন তার স্ত্রী রোজিনা খাতুন, চতুর্থ শ্রেণীতে পড়–য়া ছেলে সৌরভ খা ও শিশু শ্রেণীতে পড়–য়া ছেলে রাকিব খা।

কৃষকলীগ নেতা নূরে আলম সিদ্দিকী হক রাজকন্ঠকে জানান, আমি মাটি ও মানুষের রাজনীতি করি,আমি কৃষকলীগের রাজনীতি করি। কৃষকের দুঃসময়ে আমি সব সময় তাদের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করি, কৃষকরাই আমার প্রাণ,কৃষকই রাখে দেশের অর্থনীতির মান । যে কারণে জেলার বিপদগ্রস্থ সকল কৃষকের পাশে সব সময় থাকবো। এরই অংশ হিসেবে আমি নিহত কৃষি শ্রমিক সাহিল খার পরিবারকে ১০ হাজার টাকা প্রদান করেছি। ভবিষ্যতেও এ পরিবারটির পাশে থাকবো। এছাড়াও রাজবাড়ী জেলার ৫টি উপজেলার সকল অসহায় কৃষকের বিপদে আপদে আমি পাশে থাকবো ইনশাল্লাহ।