রাজবাড়ী, ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, শনিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২২

১৬০ কোটি মানুষ জীবিকা হারানোর দ্বারপ্রান্তে

প্রকাশ: ২৯ এপ্রিল, ২০২০ ৯:৫০ : অপরাহ্ণ

প্রিন্ট করুন

করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট অর্থনৈতিক সংকটে বিশ্বের ১৬০ কোটি মানুষ জীবিকা হারানোর দ্বারপ্রান্তে রয়েছে। বুধবার আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা এ হুঁশিয়ারি দিয়েছে।

বিশ্বের কর্মক্ষম জনগোষ্ঠীর সংখ্যা ৩৩০ কোটি। এর মধ্যে প্রায় ২০০ কোটি অনানুষ্ঠানিক অর্থনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত। অর্থাৎ এরা স্বল্পমেয়াদী চুক্তি বা আত্মকর্মসংস্থানমূলক পেশায় নিয়োজিত। করোনা সংকটের প্রথম মাসে এদের  ৬০ শতাংশ মজুরি হারিয়েছে। অর্থাৎ ১৬০ কোটি মানুষ তাদের জীবিকা হারানোর পথে।

জাতিসংঘের এই সংস্থার মহাপরিচালক গাই রাইডার সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, ‘আমি মনে করি এটি চাকরি সংকটের প্রায় পুরো চিত্র এবং তিন সপ্তাহ আগে আমাদের অনুমিত হিসাবে যে পরিণতির কথা বলা হয়েছিল তার সবগুলো গভীর হচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘৪০ লাখ শ্রমিকের আয় নেই, খাদ্য নেই, কোনো নিরাপত্তা ও কোনো ভবিষ্যত নেই। বিশ্বব্যাপী লাখ লাখ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের নাভিশ্বাস উঠছে। তাদের কোনো সঞ্চয় নেই কিংবা ঋণ নেওয়ার ব্যবস্থা নেই। এটা বিশ্বের কর্মসংস্থানের বাস্তবচিত্র। আমরা যদি তাদেরকে এখনই সাহায্য না করি তাহলে তারা স্রেফ ধ্বংস হয়ে যাবে।’

করোনার দ্রুত সংক্রমণের সবচেয়ে ভয়াবহ প্রভাব পড়েছে উত্তর ও দক্ষিণ আমেরিকায়। তবে ইউরোপের আত্মকর্মসংস্থানমূলক পেশায় নিয়োজিতরা ও চুক্তিভিত্তিক শ্রমিকরা তাদের জীবিকা হারানোর আসন্ন বিপদের মুখে।

সংকট শুরুর প্রথম দিকের তুলনায় অর্থবছরের পরবর্তী তিন মাসে যুক্তরাষ্ট্র ১২ দশমিক ৪ শতাংশ কর্মঘণ্টা হারাতে যাচ্ছে। ইউরোপ ও মধ্য এশিয়ায় এটি ১১ দশমিক ৮ শতাংশ হ্রাস পাবে বলে অনুমান করা হচ্ছে। এর মানে হচ্ছে, আফ্রিকা এবং উত্তর ও দক্ষিণ আমেরিকায় ৮১ শতাংশঅনানুষ্ঠানিক শ্রমিকের আয় হ্রাস পেয়েছে। এশিয়ায় এই হার ২১ দশমিক ৬ শতাংশ এবং ইউরোপ ও মধ্য এশিয়ায় ৭০ শতাংশ।