রাজবাড়ী, ১০ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, শুক্রবার, ২৫ নভেম্বর ২০২২

পাংশার শরিষায় করোনায় কর্মহীন হয়ে পড়া দরিদ্র মানুষের মধ্যে সরকারি ত্রান বিতরণ

প্রকাশ: ২৭ এপ্রিল, ২০২০ ৬:২৬ : অপরাহ্ণ

প্রিন্ট করুন

মাসুদ রেজা শিশির /রতন মাহমুদ ॥ সারাদেশে করোনার প্রাদুর্ভাবে কর্মহীন হয়ে পড়া দরিদ্র মানুষের মাঝে চাল নগদ ৫০ টাকা ও বিস্কুট বিতরণ করেছেন শরিসা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আজমল আল বাহার বিশ্বাস। যাতে করে সাধারণ মানুষ নিজ নিজ ঘরে অবস্থান করে করোনার হাত থেকে বাঁচতে পারে। দেশ ও সমাজকে রক্ষা করতে পারে।

রবিবার সকালে রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার শরিসা ইউনিয়নে ৪৫০ শত হত দরিদ্র ও কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষের মধ্যে সরকারি ত্রানের চাল, নগদ টাকা ও বিস্কুট বিতরণ করা হয়েছে।

শরিসা ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আজমল আল বাহার বিশ্বাস উপস্থিত থেকে এ চাল বিতরণ করেন। এ সময় তদারকী কর্মকর্তা শ্যাম সুন্দর, ,উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার ও ত্রান বিতরণ তদারকি কমিটির সদস্য মোঃ টিপু সুলতান খান, ইউনিয়ন পরিষদের সচিব মোঃ ফরহাদ হোসেন,ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যগন,স্থানীয় আওয়ামীলীগের নেতা কর্মীগন উপস্থিত ছিলেন।

করোনার প্রাদুর্ভাব শুরু হওয়া থেকে শরিসা ইউনিয়নে বিভিন্ন সময়ে ৮৬০ টি পরিবারের মধ্যে সরকারী ত্রান এবং আজ ৪৫০ জন মোট ১৩১০ জন হত দরিদ্রদের মধ্যে এ ত্রাণ বিতরণ করা হয়।

ত্রান বিতরণ কালে শরিসা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আজমল আল বাহার বিশ্বাস বলেন করোনায় কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষের মাঝে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ত্রাণ বিতরণের যে উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন তা আমরা সঠিক ভাবে প্রদান করে যাচ্ছি। এছাড়াও রাজবাড়ী জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জিল্লুল হাকিম এমপি ও তার সুযোগ্য পুত্র জেলা আওয়ামীলীগের অন্যতম সদস্য বিশিষ্ঠ ব্যবসায়ী আশিক মাহমুদ মিতুল আমার ইউনিয়নের বিভিন্ন সময়ে হতদরিদ্র মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রীসহ বিভিন্ন উপকরণ বিতরণ করেছেন। আমার ইউনিয়নের মানুষও এতে উপকৃত হচ্ছে। অপর দিকে আমরা আওয়ামীলীগ,যুবলীগ,ছাত্রলীগের নেতা কর্মীরা সম্মনয় করে নিজেরাও ৫শতাধীক মানুষের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী প্রদান করেছি,একই সাথে আমার ইউনিয়নের বিভিন্ন সচ্ছল ব্যাক্তিরাও গরীব দুঃখী মানুষের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করে চলছেন। আশা করি আমার এলাকার সাধারণ মানুষ না খেয়ে কেউ থাকবে না,আমাদের নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জিল্লুল হাকিম এমপি ও তরুন প্রজন্মের নেতা আশিক মাহমুদ মিতুল’র সহযোগীতা অব্যহত থাকবেন বলে তিনি আমাদের আশন্ত করেছেন। আমার ইউনিয়নে সরকারি যে সহায়তা আসছে আমি তা জনগণের মাঝে সঠিক ভাবে বিতরণ করছি। কোন রকম অনিয়ম আমার ইউনিয়নে নাই।