রাজবাড়ী, ৯ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, বৃহস্পতিবার, ২৪ নভেম্বর ২০২২

করোনা : ২০২২ সাল পর্যন্ত সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে

প্রকাশ: ১৫ এপ্রিল, ২০২০ ৬:০৯ : অপরাহ্ণ

প্রিন্ট করুন

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে সতর্কতা হিসেবে বর্তমানে যে শারীরিক বা সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলতে হচ্ছে, তা ২০২২ সাল পর্যন্ত বজায় রাখতে হবে। এই পদক্ষেপ নেওয়া না হলে পুনরায় করোনার প্রাদুর্ভাব দেখা দেবে বলে সতর্ক করেছেন বিজ্ঞানীরা।

জার্নাল সায়েন্স সাময়িকীতে প্রকাশিত গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, করোনার মহামারি নিয়ন্ত্রণের জন্য একবার লকডাউন যথেষ্ট নয়। করোনা প্রতিরোধে যে নিয়ন্ত্রণ আরোপ করা হয়েছে তা অব্যাহত না রাখলে দ্বিতীয় দফায় আক্রান্তের হার হবে অনেক বেশি।

গবেষণা প্রতিবেদনে সহ-লেখক হার্ভার্ডের মহামারি বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক মার্ক লিপস্টিচ বলেন, ‘দুটি জিনিসের উপস্থিতিতে সংক্রমণ হয় : আক্রান্ত ব্যক্তি ও সংক্রমণের ঝুঁকিতে থাকা ব্যক্তি। যতক্ষণ পর্যন্ত আমাদের জানার চেয়ে বিপুল সংখ্যক ব্যক্তি সংক্রমণমুক্ত না হচ্ছেন…অধিকাংশ মানুষ এখনও সংক্রমণের  ঝুঁকিতে।

তিনি বলেন, ‘আমরা সংক্রমণ সম্পর্কে যা জেনেছি তার সঙ্গে গ্রীষ্মে মহামারি শেষ হওয়ার ভবিষ্যদ্বাণীর মিল নেই।’

গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, করোনায় সংক্রমণের বর্তমান হার এবং যারা আক্রান্ত হয়েছেন তাদের সবাই সুস্থ হয়েছে কিনা এবং হয়ে থাকলে তা কতদিনে – তার ওপর নির্ভর করবে আগামি পাঁচ বছরে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার প্রয়োজনীয়তা। এই বিষয়গুলো এখনও অজানা এবং দীর্ঘমেয়াদে করোনাভাইরাসের গতিপ্রবাহ নিয়ে নির্ভুল অনুমান সম্ভব নয় বলে সতর্ক করেছেন গবেষকরা।

সংক্রমণমুক্ততা যদি স্থায়ী হয়, তাহলে প্রথম প্রাদুর্ভাবের পাঁচ বছর কিংবা তারচেয়ে বেশি সময় পর কোভিড-১৯ নির্মূল হবে। আর যদি বিদ্যমান কিছু করোনাভাইরাসের মতো মানুষ এক বছর কোভিড-১৯ থেকে সংক্রমণমুক্ত থাকে, তাহলে এর প্রাদুর্ভাব প্রতি বছর হবে।