রাজবাড়ী, ৯ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১

ক্রিকইনফোর ওয়ানডে একাদশেও সাকিব

প্রকাশ: ১ জানুয়ারি, ২০২০ ৩:২৫ : অপরাহ্ণ

ঢাকা : জুয়াড়িদের প্রস্তাব গোপন করে আইসিসির এক বছরের নিষেধাজ্ঞার খপ্পরে পড়ে বর্তমানে মাঠে নেই সাকিব আল হাসান। তাতে কী হয়েছে? নিষেধাজ্ঞা পাওয়ার পূর্ব পর্যন্ত তিনি যে পারফর্ম করেছেন সেটিই যথেষ্ট। ইএসপিএন ক্রিকইনফোর দশকসেরা ওয়ানডে একাদশে জায়গা পেয়ে সেটি আরো একবার প্রমাণ করলেন বাংলাদেশের এই অলরাউন্ডার।

সদ্য সমাপ্ত বছরের শেষ দিকে এসে একের পর এক সুখবর পেতে থাকেন সাকিব। প্রথমে ক্রিকেটের বাইবেলখ্যাত সাময়িকী উইজডেনের দশক সেরা ওয়ানডে দলে স্থান করে নেন। এরপর ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ) ও বিশ্বখ্যাত ভারতীয় ধারাভাষ্যকার হার্শা ভোগলের বর্ষসেরা ওয়ানডে একাদশে স্থান পেয়েছেন ক্রিকেট দুনিয়ার অন্যতম সেরা এই অলরাউন্ডার।

সর্বশেষ ক্রিকইনফোর ওয়ানডে একাদশে জায়গা পান বাংলাদেশের ক্রিকেটের পেস্টারবয়। ক্রিকইনফোর ওয়ানডে একাদশে সাকিবের ব্যাটিং পজিশন রাখা হয়েছে ৭ নম্বরে। দশকের সেরা উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হিসেবে বাছাই করা হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকার হাশিম আমলা ও ভারতের রোহিত শর্মাকে। ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলিকে রাখা হচ্ছে তিন নম্বরে। আর দক্ষিণ আফ্রিকার এবি ডি ভিলিয়ার্সকে মিডল অর্ডারে চার নম্বরে রাখা হয়েছে। পাঁচে রস টেলর, ছয়ে মহেন্দ্র সিং ধোনি। আর বোলার হিসেবে বেছে নেয়া হয়েছে ট্রেন্ট বোল্ট, মিচেল স্টার্ক, লাসিথ মালিঙ্গা ও ইমরান তাহিরকে।

গত ১০ বছর ধরে দাপটের সঙ্গে খেলে যাচ্ছেন সাকিব। ব্যাট হাতে পর্যাপ্ত রানের পাশাপাশি দলের প্রয়োজনে উইকেট নিয়ে ভারসাম্য রেখেছেন। এই সময়ে ৩৮.৮৭ গড়ে তিনি রান করেছেন ৪২৭৬। বল হাতে ৩০.১৫ গড়ে নিয়েছেন ১৭৭ উইকেট! তাই তার এই একাদশে জায়গা হয়েছে অলরাউন্ডার হিসেবেই।

ইএসপিএন দশকসেরা একাদশে বিশেষজ্ঞ স্পিনার হিসেবে থাকা ইমরান তাহিরের চেয়েও সাকিবের উইকেট সংখ্যা বেশি। তাহির নিয়েছেন ১৭৩ উইকেট।