রাজবাড়ী, ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, রোববার, ৪ ডিসেম্বর ২০২২

পাংশা পৌর আ’লীগের সভাপতি ওয়াজেদ, সম্পাদক অতুর

প্রকাশ: ১০ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১:২৪ : অপরাহ্ণ

প্রিন্ট করুন

রাজবাড়ির পাংশা পৌর আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার পাংশা পৌর সভা চত্বরে কাউন্সিলটি অনুষ্ঠিত হয়।

কাউন্সিল অধিবেশনের মাধ্যমে নতুন নেতৃত্ব নির্বাচন করা হয়েছে। পৌর আ’লীগের বর্তমান সভাপতি ও পৌরসভার সাবেক মেয়র মোঃ ওয়াজেদ আলী মাষ্টার ফের সভাপতির দায়িত্ব পেয়েছেন।

প্রথম সহ-সভাপতি নিবৃাচিত হয়েছেন সাবেক উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক দিপক কুমার কুন্ডু। সাধারণ সম্পাদক পদে আবারও নির্বাচিত হয়েছেন প্যানেল মেয়র আব্দুল ওদুদ সরদার অতুর।

উপস্থিত ডেলিগেট কাউন্সিলরদের উপস্থিতিতে পাংশা পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি পদে ওয়াজেদ আলী মাষ্টারের বিপক্ষে কোন প্রার্থী না থাকায় তাকে পুনরায় সভাপতি ঘোষণা করা হয়। সাধারণ সম্পাদক পদে ওদুদ সরদার অতুরেও কোনো প্রতিদ্বন্দী ছিলো না।

জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করার মধ্য দিয়ে কাউন্সিল অধিবেশন শুরু হয়। পাংশা পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক মেয়র মোঃ ওয়াজেদ আলী মাষ্টারের সভাপতিত্বে ও দিপক কুমার কুন্ডুর সঞ্চালনায় কাউন্সিল অধিবেশনে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও রাজবাড়ি-২ আসনের সাংসদ বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জিল্লুল হাকিম।

প্রধান অতিথি তার বক্তৃতায় বলেন, রাজবাড়ী-১ আসনের এমপি কাজী কেরামত আলী বলেছেন আমি নাকি এককভাবে কমিটি গঠন করছি। কিন্তু আমি বলতে চাই, আমরা নিয়মতান্ত্রিকভাবে সকল কমিটি গঠন করছি। তার অভিযোগ সঠিক নয়।

প্রধান অতিথি তার বক্তৃতায় আওয়ামী লীগকে শক্তিশালী করার জন্য কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন একই সাথে তার নির্বাচনী এলাকার বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড তুলে ধরেন।

কাউন্সিল অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন, পাংশা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ.কে এম শফিকুল মোর্শেধ আরুজ, সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ হাসান আলী বিশ্বাস, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল ইসলাম ফটিক, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও পৌর মেয়র আব্দুল আল মাসুদ বিশ্বাস, পাংশা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ ফরিদ হাসান ওদুদ, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ জালাল উদ্দিন বিশ্বাস, পাংশা উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ শাহিদুল ইসলাম মারুফসহ বিভিন্ন ওয়ার্ডের নেতৃবৃন্দ।